নেতাকর্মীদের সরব উপস্থিতিতে রাঙামাটিতে বিএনপির ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

॥ নির্জন-হৃদয় ॥

মামলা-হামলাসহ নানামুখি ঝামেলার মধ্যেও বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীদের সরব উপস্থিতির মধ্যদিয়ে পার্বত্য জেলা রাঙামাটি শহরে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি দল বিএনপির ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান পালন করেছে দলটির নেতাকর্মীরা। রোববার বিকেলে দলীয় পতাকা প্রদর্শণ করে শহরের পথে বর্ণাঢ্য শোডাউনের মাধ্যমে দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর র‌্যালীটি নিউ মার্কেট চত্বর থেকে শুরু হয়ে দলীয় কার্যালয়ে সমাবেশে মিলিত হয়। সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম। এসময় তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন,

আইনকে কুক্ষিগত করে আদালতে রাষ্ট্রীয় নগ্ন হস্তক্ষেপের মাধ্যমে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি’র চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে আটক রেখেছে বর্তমান সরকার। এমন অভিযোগ করে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি দল বিএনপি’র চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম আরো বলেছেন বর্তমান সময়ে দেশে যেমনিভাবে আইনের শাসন নেই, তেমনি ক্ষমতাসীনদের নীতি নৈতিকতাও নেই। তাইতো এই অবৈধ সরকার রাষ্ট্র ক্ষমতায় থেকেও ভারতের বিজেপি নেতাদের বাংলাদেশ নিয়ে কটুক্তির জবাব কুটনৈতিকভাবে দিতে ব্যর্থ হচ্ছে।

তাই এই সরকারের বিরুদ্ধে স্বোচ্চার হতে বিএনপি’র নেতাকর্মীসহ জনসাধারণকে কঠোর আন্দোলনে নামার আহবান জানিয়েছেন শামীম। রোববার বিকেলে রাঙামাটি শহরে আয়োজিত বিএনপির ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন কেন্দ্রীয় এই নেতা।

উক্ত অনুষ্ঠানে আলহাজ্ব মোঃ শাহআলমের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বিএনপির সাবেক উপমন্ত্রী মনিস্বপন দেওয়ান, মুক্তিযোদ্ধা অব: কর্ণেল মনিষ দেওয়ান, রাঙামাটি জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক দীপন দেওয়ান, যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট মামুনুর রশিদ মামুন, সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট সাইফুল ইসলাম পনির, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ফারুক আহমেদ সাব্বিরসহ দলটির অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এরআগে বিএনপির ৪১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে রোববার বিকেলে শহরের নিউ মার্কেট চত্বর থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা বিএনপির কার্যালয়ে এসে শেষ হয়। র‌্যালিতে দলীয় পতাকা, রং বেরংয়ের ব্যানার, খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি সম্বলিত পোষ্টার-ফেষ্টুন নিয়ে বিএনপি, ছাত্রদল, যুবদল, শ্রমিকদল, স্বেচ্ছাসেবকদলসহ অঙ্গ সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী অংশগ্রহণ করে।