রাঙামাটিতে দিনে-দুপুরে মালিককে মেরে দো’তলা বসতঘর দখলে নিলো প্রভাবশালী

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

রাঙামাটি শহরে দিনে-দুপুরে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে বৈধ মালিককে মারধর করে বের করে দিয়ে দোতলা বিল্ডিং বাড়ি দখল করে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে ভূক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা সাংবাদিকদের জানায়, লংগদু থেকে আসা জনৈক শাহজাহান নামের এক ব্যক্তি ও তার মেয়েরা গত বুধবার দিনে-দুপুরে হামলা চালিয়ে শহরের উন্নয়ন বোর্ড সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা আঞ্জুমান আরা বেগমের দোতলা বসতঘরটি দখলে নিয়ে নেয়।

এসময় বাধা দিতে গেলে বাড়িটির বৈধ মালিক ও তার স্কুল পড়–য়া কন্যাকে জোর করে বেধে স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেওয়ার লক্ষ্যে বেদড়ক মারধর করে এবং তাদের সকল জিনিসপত্র বাড়ির বাইরে ছুড়ে ফেলে দরজায় তালা লাগিয়ে দেয়।

এরপর থেকে পরিবারটির সদস্যরা বাড়িতে প্রবেশ করতে দিচ্ছেনা বলে অভিযোগ করে সংবাদ সম্মেলনে পরিবারটি স্কুল পড়–য়া কন্যা জানায়, সামনে আমার এসএসসি পরীক্ষা, বাসায় ঢুকতে না পারায় আমার পড়ালেখা বন্ধ রয়েছে।

আমার মা আঞ্জুমান আরা বর্তমানে রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে থানায় লিখিত অভিযোগ করেও কোনো সুরাহা হয়নি বলেও অভিযোগ করে পরিবারটি। সংবাদ সম্মেলনে আঞ্জুমান আরার’ ছোট ছেলে ১০ বছর বয়সী আরিফ, বড় মেয়ে, প্রতিবেশি ও নিকটাত্মীয়রা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে অন্তত ১০জন গণমাধ্যমকর্মী সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গেলে শাহাজাহান ও তার পরিবারের সদস্য কর্তৃক হামলা চালিয়ে আঞ্জুমান আরার বসতভিটা টি দখল করে নিয়েছে বলে স্বাক্ষ্য দিয়েছে স্থানীয় প্রতিবেশিরা।

স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর করিম আকবরও ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, আমি বিষয়টি জানার পর ভূক্তভোগীদের থানায় যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছি।

এদিকে সংবাদ সম্মেলন পরবর্তী বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে রাঙামাটি কোতয়ালী থানায় যোগাযোগ করলে থানার অফিসার ইনচার্জ মীর জাহেদুল হক রনি উর্দ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া ক্যামেরার সামনে কথা রাজি নাহলেও তিরি জানান, আমরা ভূক্তভোগীদের কাছ থেকে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি।

তদন্তকারি কর্মকর্তার প্রাথমিক তদন্তে ফৌজদারি অপরাধের সত্যতা পেয়েছি। এই ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধি ৪৪৭/৪৪৮/৪২৭/৩২৩/৩২৪/৩৮০/৫০৬ ধারায় কোতয়ালী থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলা নাম্বার-৪, তারিখ: ০৬/০৯/২০১৯ইং। আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্ঠা চলছে বলেও জানিয়েছেন ওসি।