নাইক্ষ্যংছড়ির ৩ ইউপিতে ভোট গ্রহণ ১৪ অক্টোবর

॥ বান্দরবান প্রতিনিধি ॥

আগামী ১৪ই অক্টোবর বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার তিন ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। ইসির উপসচিব মোঃ আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তফসিল ঘোষণা করা হয়।

তফসিল অনুযায়ী নাইক্ষ্যংছড়ি সদর, সোনাইছড়ি ও ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নিজ দলের মনোনয়ন পেতে প্রার্থীদের দৌড় ঝাপও শুরু হয়ে গেছে। আগামী ১২ সেপ্টেম্বর রিটার্নিং অফিসারের কাছে প্রার্থীদের মনোনয়ন জমা দেয়ার শেষ দিন। মনোনয়নপত্র যাছাই বাছাই হবে ১৫ সেপ্টেম্বর। আর প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ২২ সেপ্টেম্বর। এদিকে নির্বাচনের তফশীল ঘোষনার পর থেকে এলাকার মানুষের মধ্যে দেখা দিয়েছে নির্বাচনী আমেজ। চায়ের দোকান হাট বাজার সবখানে চলছে নির্বাচনী গুঞ্জন। সম্ভাব্য প্রার্থীরা দলীয় মনোনয়ন পেতে ছুটে বেড়াচ্ছেন নিজ দলের নীতি নির্ধারকদের দ্বারে দ্বারে। তবে নির্বাচনকে ঘিরে আ.লীগ প্রার্থীদের সরব পদচারনা লক্ষ্য করা গেলেও বিএনপি প্রার্থীদের তেমন একটা দেখা যাচ্ছে না। সদর ইউনিয়ন পরিষদে বর্তমানে চেয়ারম্যান হিসেবে আছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি তসলিম ইকবাল চৌধুরী, সোনাইছড়ি ইউনিয়নে আছেন বাহাইন মার্মা, ঘুমঘুধুম ইউনিয়নে এ,কে,এম জাহাঙ্গীর আজিজ। এবারো দলীয় প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন চাইবেন বলে জানান তারা। তবে নতুন অনেক প্রার্থীও দলীয় মনোনয়ন পেতে লবিং করছে বলে জানা গেছে। নতুন প্রার্থী হিসেবে সদর ইউনিয়নে নুরুল আবছার ইমন, সোনাইছড়িতে এ্যানিং মার্মা, ও ঘুমধুম ইউনিয়নে মো হারেছ এর নাম শোনা যাচ্ছে।

ইতোমধ্যে সম্ভাব্য প্রার্থীরা ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় উঠান বৈঠক হাটবাজারে কুশল বিনিময়সহ বিভিন্নভাবে প্রচারণা চালাচ্ছেন। সদর ইউপি চেয়ারম্যান তসলিম ইকবাল চৌধুরী বলেন, বিগত ২ বছর ধরে আমি এ ইউনিয়নের মানুষের সেবা করে আসছি আবার যদি সুযোগ পাই নাইক্ষ্যংছড়ি সদর ইউনিয়নকে উন্নয়নের রোল মডেল করবো।’

বিএনপির নেতা নুরুল কাশেম জানান, এখনো জেলা থেকে দলীয় ভাবে কোন সিদ্ধান্ত আসেনি। আমরা দলীয় সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় আছি।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক সফিউল্লাহ জানান, নাইক্ষ্যংছড়ি সদরে বর্তমান চেয়ারম্যান তসলিম ইকবাল চৌধুরী, ঘুমধুম ইউপিতে একেএম জাহাঙ্গীর আজিজ ও সোনাইছড়িতে নবাগত এ্যানিং মার্মাকে আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতাকর্মীরা গোপন ব্যালেটের মাধ্যমে একক প্রার্থী মনোনীত করেছেন। দলের চুড়ান্ত মনোনয়ন নৌকা প্রতীক দেয়ার জন্য তৃণমূল থেকে জেলার শীর্ষ নেতাদের কাছে তথ্য পাঠানো হয়েছে।