ডিউটির পাশাপাশি সমাজ উন্নয়নেও কাজ করে যাচ্ছেন বান্দরবান পুলিশের কনস্টেবল দোলন

॥ বান্দরবান প্রতিনিধি ॥

বান্দরবান পুলিশে কর্মরত কনস্টেবল মো: মেহেদী হাসান দোলন। ২০১৬ সালে এসএসসি পাশ করে যোগ দেয় বাংলাদেশ পুলিশে। যোগদানের পর ট্রেনিং শেষ করে প্রথম পোস্টিং নিয়ে বান্দরবান পুুলিশ লাইনে রির্জাভ অফিসে কর্মরত রয়েছে। পুলিশে চাকুরী পাওয়ার পর থেকেই দেশসেবা ও মানব সেবার ব্রত নিয়ে এগিয়ে যায় এই মো: মেহেদী হাসান দোলন। অসহায় ও দরিদ্র মানুষের জন্য সবসময় কিছু করার চিন্তা নিয়ে এগুতো থাকে প্রতিনিয়িত।

মানব সেবার উন্নয়নে সব সময় কাজ করে যাওয়ায় জন্য চেষ্টা করে এই পুলিশ সদস্য মো: মেহেদী হাসান দোলন। সরকারি বেতনের জমানো কিছু অর্থ মানবতার কল্যাণে ব্যয়ের স্বপ্ন অনেক আগের ,যেমন ইচ্ছা তেমনি ধারাবাহিকতা।
সাম্প্রতিক সময়ে বান্দরবান সদরের ইসলামপুরের হোসেন নামে এক ব্যক্তিকে ভিক্ষা বৃত্তির পেশা ছেড়ে সুন্দরভাবে নতুন জীবন চালিয়ে নেয়ার জন্য একটি সাইকেল ট্রলিতে কয়েকটি র‌্যাক তৈরি করে তাকে নগদ কিছু অর্থ দিয়ে ভিক্ষাবৃত্তি না করে ছোট ব্যবসা করে সুন্দরভাবে জীবন চালানোর জন্য সহায়তা করে। এখন এই পুলিশ সদস্য দোলনের সহায়তায় প্যারলাইস্ড আক্রান্ত মো:হোসেন এর জীবনে স্বচ্ছলতা ফিরে এসেছে,আর মো:হোসেন সুখে দিনযাপন করছে ।

শুধু প্যারলাইসড এ আক্রান্ত মো:হোসেনকে সহায়তা করে বসে থাকেনি এই পুুলিশের সদস্য। কিভাবে বান্দরবানের জনগণের সেবা করা যায় তার চিন্তা নিয়ে এগুতে থাকে প্রতিক্ষন। যেমনি ভালো চিন্তা তেমনি কাজ। “পরিত্যক্ত পলিথিন ও প্লাষ্টিক সামগ্রী জমা দিন,পরিবেশ বন্ধু গাছ নিন ” এই শ্লোগানে নিজ উদ্যোগে ক্ষতিকর পলিথিন ও প্লাষ্টিক বজ্য ত্যাগের জন্য জনসাধারণকে সচেতনতা কার্যক্রম পরিচালনা করেন, এবং জনসাধারণ থেকে পরিত্যক্ত পলিথিন ও প্লাষ্টিক সামগ্রী গ্রহন করে তা এক জায়গায় সংরক্ষণ করে তাদের হাতে তুলে দেয় পরিবেশ বান্ধব গাছ। ২০১৭ সাল থেকে এই পর্যন্ত বান্দরবানের বিভিন্ন আবাসিক এলাকা,বিদ্যালয় ও সাধারণ জনগণের মধ্যে বিনামুল্যে প্রায় ৮ হাজার গাছের ছারা বিতরন করে পুুলিশের গৌরব মো: মেহেদী হাসান দোলন। বিনামুল্যে গাছের চারা বিতরনের সময় তিনি জনসাধারণকে পাহাড় থেকে যেনতেনভাবে গাছ না কাটতে পরামর্শ প্রদান করে এবং বেশি বেশি গাছ লাগিয়ে পরিবেশ সুরক্ষা করতে সকলকে আহবান জানান।

সম্প্রতি বান্দরবান সদরের লেমুঝিড়িতে অবস্থিত বম আবাসিক ছাত্র হোস্টেলে অবস্থানরত দূর্গম অঞ্চল থেকে আসা গরীব অসহায় মেধাবী ছাত্রদের মধ্যে এই পুলিশ সদস্য দোলন ব্যক্তিগত উদ্যোগে শিক্ষা সামগ্রী,স্কুল ড্রেস,সাবান,ব্রাশ ,টুটপেস্ট,নেইল কাটার,তোয়ালেসহ বিভিন্ন সামগ্রী প্রদান করে।

সাধারণ মানুষ ও শিক্ষার্থীদের মাঝে সরকারি জরুরী সেবা ৯৯৯ সর্ম্পকে সচেতনতা সৃষ্টি করতে পুলিশের এই গর্বিত সদস্য প্রতিটি মহুর্ত¡ কাজ করে যাচ্ছে । যে কোন বিপদে পুলিশ,ফায়ার সার্ভিস ও এম্বুলেন্সের সহায়তা নিতে সরকারি জরুরী সেবা ৯৯৯ সর্ম্পকে সবাইকে বিশদ ধারণা দেন মো: মেহেদী হাসান দোলন। নিজ কর্মস্থলের পাশাপশি সমাজের বিভিন্ন জনগুরুত্বপূর্ণ কাজ করেই পরম তৃপ্তি পায় পুলিশের এই সদস্য। সেই সাথে সামাজিক কাজ করে জনগণের দু:খ লাগবে প্রতিনিয়ত শ্রম দিতে প্রস্তুত এই দেশপ্রেমিক পুলিশের সদস্য মো: মেহেদী হাসান দোলন।

সরকারি আইনশৃংখলা রক্ষাকারি বাহিনী পুলিশে কর্মরত থেকে নিজ বেতনের জমানো কিছুটা অর্থ দিয়ে জনগণের কল্যাণে সারাজীবন কাজ করে যেতে চায় পুলিশের গৌরব মো:মেহেদী হাসান দোলন,আর সমাজ পরির্বতনের এই অগ্রযাত্রায় তিনি কামনা করেন সকলের আন্তরিকতা ও ভালোবাসা।