জুরাছড়ির মধ্য বালুখালী গ্রামের জনগণের উদ্যোগে প্রীতি সম্মিলন

॥ জুরাছড়ি প্রতিনিধি ॥

জ্ঞানেন্দু বিকাশ চাকমা বলেন,এলাকায় শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে না পারলে উন্নয়ন সম্ভব নয়,এজন্য উন্নয়ন করতে হলে সকলকেই একতাবদ্ধ ভাবে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি আরো জানান,জুরাছড়ি এলাকার মধ্য বালুখালী গ্রামের কৃতি সন্তান জগৎ জ্যোতি চাকমা ১৯৯০ সালে অর্কোপল ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক ক্লাব প্রতিষ্ঠা করার পর বর্তমানে আমরা অনেক দুর এগিয়েছি। এলাকার জনগণ যদি আগামীতে শারিরিক মানসিক ভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন তাহলে আরো বেশী উন্নয়ন ঘটাতে পারবো এই আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

জগৎ জ্যোতি চাকমা বলেন,সমাজ ব্যবস্থা অত্যন্ত জটিল,একটি আদর্শ সমাজ পরিবর্তন করতে হলে প্রয়োজন আগে শিক্ষা,শিক্ষায় শিক্ষিত হতে পারলে সে সমাজ ব্যবস্থা দিনদিন পরিবর্তন ঘটবে। তাই সমাজে অসামাজিক অপকর্ম গুলো পরিহার করে আমাদের শৃংখলা বোধ মানসিকতা নিয়ে এগিয়ে আসার জন্য অনুরোধ করেন।

আজ শুক্রবার অর্কোপল ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক ক্লাব কাম কমিউনিটি সেন্টার এর স্থানে জুরাছড়ি উপজেলাধীন মধ্য বালু খালী গ্রামে জনগণের উদ্যোগে প্রীতি সম্মিলন অনুষ্ঠানে বনবিহারী চাকমা সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ সদস্য জ্ঞানেন্দু বিকাশ চাকমা,প্রাক্তন উপজেলা চেয়ারম্যান প্রবর্তক চাকমা,জুরাছড়ি এলাকার কৃতি সন্তান জগৎ জ্যোতি চাকমা সহ উক্ত গ্রামের বিভিন্ন গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

বক্তরা বলেন,বর্তমান জেলা পরিষদ সদস্য জ্ঞানেন্দু বিকাশ চাকমা’র প্রচেষ্টায় মধ্য বালুখালী গ্রামে বহু উন্নয়ন ত্বরানিত হয়েছে। এই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হলে আমাদের সমাজের শৃঙ্খলা একতাবদ্ধ ও মৈত্রী পোষণ মনোভাব নিয়ে কাজ করার জন্য অনুরোধ ব্যক্ত করেন। বক্তারা আরো বলেন,যারা এই মধ্য বালুখালী গ্রাম থেকে উচ্চ শিক্ষা লাভ করে বিভিন্ন সরকারি চাকুরীতে নিয়োজিত রয়েছেন তাদের পক্ষ থেকে এলাকায় যারা নিতান্ত গরীব মেধাবী ছাত্র-ছাত্রী রয়েছেন তাদের জন্য কিছুতা হলে সহযোগিতা দেওয়ার অব্যাহত থাকবে এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেন। অনুষ্ঠানে জুরাছড়ি কৃতি সন্তান জগৎ জ্যোতি চাকমাকে এলাকার পক্ষ থেকে সম্মাননা স্বারক প্রদান করা হয়।