রাঙ্গামাটি পৌর এলাকার অসহায় ও ক্ষতিগ্রস্থ মহিলাদের মাঝে বন্ধু চুলা বিতরণ

॥ ইকবাল হোসেন ॥

বাংলাদেশ বন্ধু ফাউন্ডেশন (বন্ধু) ও রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র এবং প্রত্যেক ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের সহযোগীতায় অত্র এলাকায় অসহায়,বন্যা/ঘুর্নিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারদের মাঝে বন্ধু চুলা বিতরন’র করছে শাপলা নারী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন পরিচালিত (শাপলা স্যানিটারি)।

রবিবার (২০ অক্টোবর) সকাল ১০ ঘঠিকায় রাঙামাটি পৌরসভার সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা ও পরিবেশ বান্ধব বন্ধুচুলা বিতরণ করা হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাঙামাটি পৌরসভার প্যানেল মেয়র মো. জামাল উদ্দীন। শাপলা নারী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন’র নির্বাহী পরিচালক মো: নাছির উদ্দীন এবং শাপলা স্যানিটারির ম্যানেজার হাসিনা বেগম ও বন্ধু চুলা গ্রহনকারিগন ।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী বলেন, সনাতন চুলার ব্যাবহারে ধোঁয়াজনিত রোগে বাংলাদেশ প্রতি বছর প্রায় ৪৬,০০০ মানুষ মারা যায়। এর পাশাপাশি রান্নার জন্য বাংলাদেশে প্রতি বছর প্রায় ১৫০ কোটি মণ জ্বালানী খরচ হয়। তাই অধিক বৃক্ষ নিধনের ফলে বাংলাদেশের বনাঞ্চল দিন দিন সংকুচিত হয়ে যাচ্ছে। পরিবেশ ভারসাম্যহীনতার কারণে বাংলাদেশে অতিবৃষ্টি/অনাবৃষ্টি/বন্যা/খরা এসব প্রাকৃতিক দূর্যোগ বাড়ছে। এজন্য রাঙামাটি পৌর এলাকায় শতভাগ বন্ধু চুলা স্থাপনে বাংলাদেশ বন্ধু ফাউন্ডেশন(বন্ধু) কর্তৃপক্ষকে মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী সার্বিক সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন।

উল্লেখ্য- পঞ্চম দফায় ৭ নং ওয়ার্ড’র অসহায়, বন্যা/ঘুর্নিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ মোট ৪০টি পরিবারের মাঝে বন্ধু চুলা বিতরণ করা হয়। ক্রমানয়ে প্রতিটি ওয়ার্ড সমূহেও বন্ধু চুলা বিতরণ করা হবে। বন্ধু চুলা তৈরি ও স্থাপনায় সহযোগিতা করছেন শাপলা নারী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন পরিচালিত (শাপলা স্যানিটারি) আসামবস্তি, রাঙামাটি।