জেএসসি-জেডিসি ও ভোকেশনালে প্রথমদিনে রাঙামাটিতে অনুপস্থিত ২৭৩ পরীক্ষার্থী

॥ আলমগীর মানিক ॥

প্রথমদিনেই ২৭৩ পরীক্ষার্থীর অনুপস্থিতির মাধ্যমে পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে অনুষ্ঠিত হলো জেএসসি-জেডিসি ও এসএসসি ভোকেশনাল পরীক্ষা। এবার জেলার ৩২টি কেন্দ্রে সর্বমোট ১০ হাজার ৯২৯জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করার কথা ছিলো। তার মধ্যে শনিবার সকাল থেকে অনুষ্ঠিত হওয়া পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছে ১০ হাজার ৬৫৬ জন পরীক্ষার্থী।

জেলায় জেএসসি পরীক্ষার ২৩টি কেন্দ্রে ৪ হাজার ৯৪২জন ছাত্রী ও ৪ হাজার ৫৬২জন ছাত্র, জেডিসি পরীক্ষায় জেলার ৫টি কেন্দ্রে ৩৮৯জন ছাত্র ও ৩২২জন ছাত্রী এবং এসএসসি ভোকেশনাল পরীক্ষায় রাঙামাটির ৪টি কেন্দ্রে অংশগ্রহণ করেছে ৪৬৯ জন ছাত্র ও ২৪৫ জন ছাত্রী।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসকের শিক্ষা বিভাগ থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুসারে জানাগেছে, এবার জেলায় জেএসসিতে ১২৬ জন ছাত্র ও ৮৯ জন ছাত্রীসহ মোট ২১৫জন, জেডিসিতে ১৭ ছাত্র ও ১৭ জন ছাত্রীসহ মোট ৩৪জন এবং এসএসসি ভোকেশনালে ১৮জন ছাত্র ও ৬জন ছাত্রীসহ মোট ২৪ শিক্ষার্থী প্রথমদিনের পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেনি।

এদিকে, শনিবার সকাল থেকে পরীক্ষা শুরু হওয়ার পরপরই রাঙামাটি শহরের বিভিন্ন পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করেছেন রাঙামাটির জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট একেএম মামুনুর রশীদসহ প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্তাব্যক্তিগণ।

এদিকে নকলমুক্ত ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পরীক্ষা সম্পন্ন করতে জেলা প্রশাসন ও শিক্ষা বিভাগ যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে এবং সার্বিক পরিস্থিতি সন্তোষজনক বলে জানিয়েছেন রাঙামাটির জেলা শিক্ষা অফিসার উত্তম খীসা।

তিনি জানিয়েছেন, প্রতিটি কেন্দ্রে ৫ সদস্য বিশিষ্ট্য কেন্দ্র পরিচালনা কমিটি গঠন করা হয়েছে। জেলা শহরে জেলা প্রশাসক এবং উপজেলাগুলোতে ইউএনওগণ এসকল কমিটির নেতৃত্ব প্রদান করছেন।

এছাড়া এবারে রাঙামাটি জেলায় জেএসসি-জেডিসি ও ভোকেশনাল পরীক্ষায় প্রতি ২০ জনে একজন করে শিক্ষক এবং একটি পরীক্ষা চলাকালীন প্রতিটি কক্ষে দুইজন করে শিক্ষক দায়িত্ব পালনে নিযুক্ত করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন জেলা শিক্ষা অফিসার উত্তম খীসা।