পাহাড়ের সৌন্দর্য্যের সাথে মানানসইভাবে রাবিপ্রবি’র অবকাঠামো নির্মাণ করা হবে

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রাবিপ্রবি) এর অস্থায়ী প্রধান কার্যালয়ে “রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রাবিপ্রবি) স্থাপন” শীর্ষক প্রকল্পের বাস্তব অগ্রগতি পর্যালোচনা বিষয়ক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিশ^বিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (বিমক) এর সদস্য প্রফেসর ড. মোঃ সাজ্জাদ হোসেন এবং সভাপতিত্ব করেন রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রাবিপ্রবি) এর উপাচার্য প্রফেসর ড. প্রদানেন্দু বিকাশ চাকমা।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিশ^বিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (বিমক) এর পরিকল্পনা ও উন্নয়ন বিভাগের পরিচালক ড. ফেরদৌস জামান, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন বিভাগের সিনিয়র সহকারী পরিচালক জনাব মোঃ আব্দুল আলীম, রাবিপ্রবি’র রেজিষ্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) জনাব অঞ্জন কুমার চাকমা, রাবিপ্রবি’র পরিচালক (হিসাব) মোঃ মাসুদুর রহমান এবং রাবিপ্রবি কর্মকর্তাবৃন্দ।

সভার শুরুতে জাতীয় চার নেতার স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয় ও তাঁদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর সুযোগ্য নেতৃত্ব, জাতীয় চার নেতা ও মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে আমরা এ বাংলাদেশ পেয়েছি, প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিমক এর সদস্য প্রফেসর ড. মোঃ সাজ্জাদ হোসেন একথা বলেন।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে সুখী, সমৃদ্ধ, দুর্নীতিমুক্ত ও উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করার জন্য বিভিন্ন রুপকল্প হাতে নিয়েছেন। রুপকল্পসমূহ বাস্তবায়নে নতুন প্রজন্মকে পরিশ্রম করতে হবে এবং এ রুপকল্পসমূহ বাস্তবায়নে বিশ^বিদ্যালয়ের বিশাল ভূমিকা রয়েছে, একথা বলেন তিনি। শিক্ষার্থীদের মেধাবী ও যোগ্য করে গড়ে তুলতে শিক্ষকদের গবেষণার প্রতি বিশেষ নজর দেওয়ার আহবান জানান বিমক এর সদস্য প্রফেসর ড. মোঃ সাজ্জাদ হোসেন ।

রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় বিশ^ ও এশিয়ার মধ্যে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ক্ষেত্রে দৃষ্টান্ত স্থাপন করবে তিনি এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং সেলক্ষ্যে সকলকে কাজ করার আহবান জানান। তিনি পাহাড়ের বৈশিষ্ট্য অক্ষুণ্ণ রেখে এ বিশ^বিদ্যালয়ের অবকাঠামো নির্মাণের পরামর্শ প্রদান করেন।

রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় (রাবিপ্রবি) এর উপাচার্য প্রফেসর ড. প্রদানেন্দু বিকাশ চাকমা রাঙ্গামটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় স্থাপন প্রকল্পের অগ্রগতি এবং ভবিষ্যত পরিকল্পনাসমূহ সভায় উপস্থাপন করেন। সভা শেষে বাংলাদেশ বিশ^বিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন প্রতিনিধিদলটি বিশ^বিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাস পরিদর্শন করেন এবং পরিদর্শন শেষে স্থায়ী ক্যাম্পাসে বৃক্ষরোপন করা হয়।