ব্রেকিং নিউজ

“মহানবীর আদর্শেই আমাদের শিশুদের জীবন গড়তে হবে”

॥ ইকবাল-মাহিন ॥

ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) উপলক্ষে শিশু একাডেমিতে আয়োজিত অনুষ্ঠানে রাঙামাটিতে সদ্য যোগদান করা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক নূরুল হুদা বলেন মহানবীর আদর্শেই শিশুদের জীবন গড়তে হবে।বাংলাদেশ শিশু একাডেমি রাঙামাটি পাবর্ত্য জেলা কার্যালয়ের উদ্যোগে ১২ই রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী-১৯ উপলক্ষে হাম্দ-নাত, রচনা প্রতিযোগিতা আলোচনা সভা মিলাদ ও দোয়া মাহফিল’র আয়োজন করা হয়েছে। রবিবার (১০ই নভেম্বও ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দ) সকালে রাঙামাটি শিশু একাডেমী মিলনায়তনে আলোচনা সভা মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাঙামাটি পাবত্য জেলায় সদ্য যোগদান করা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক নূরুল হুদা। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন রাঙামাটি শিশু একাডেমির জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা মিসেস অর্চনা চাক্মা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক জেলা কালচারাল অফিসার মুজিবুল হক বুলবুল, রাঙামাটি পাবর্ত্য জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য মনিরুজ্জামান মহসিন রানা, রাঙামাটি সদর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাসরিণ ইসলাম, রাঙামাটি সিনিয়র মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা সিরাজুল ইসলাম, ফিসারী জামে মসজিদ’র খতিব মো. আব্দুল জলিল সরকার, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক কাউসার আলী, রাঙামাটি শিশু একাডেমির চিত্রাংকন শিক্ষক চিত্রশিল্পী মো. ইব্রাহিম। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন রাঙামাটির অন্যতম সেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন ইয়ুথের পরিচালক মো. ইকবাল হোসেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যর শুরুতেই বৃষ্টিস্নাত দিনেও সকলে উপস্থিত হওয়ায় সকলকে রাঙামাটি জেলা প্রশাসন ও তার ব্যক্তিগত পক্ষথেকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন হযরত মুহাম্মদ (স.) এমন একটি ব্যক্তিত্যের অধিকারী ছিলেন যা বর্তমান যুগে বিরল। মহানবীকে আল-আমীন উপাধি দেয়া হয়েছিলো কারণ তিনি তার ৬৩ বছরের জীবনকালে একবারের জন্য হলেও মিথ্যা কথা বলেন নি। তাই তিনি উপস্থিত অভিভাবকদের তাদেও শিশুদেরকে সত্যবাদী হওয়ার শিক্ষা দেয়ার আহ্বান জানান।

এছাড়াও উপস্থিত শিশুরা যাতে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (স.) এর আদর্শকে বুকে ধারণ করে সু-শিক্ষায় শিক্ষিত হয় উঠতে পারে এ বিষয়ে তিনি অভিভাবকদেরকে আরো যতœশীল হওয়ার আহ্বান জানান। তিনি উপস্থিত শিশুদের সামনে মহানবীর জীবনী সম্পর্কে আলোচনা করেন।

আলোচনা সভার পর মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এরপর একই দিন সকালে অনুষ্ঠিত হামদ-নাথ ও মহানবীর শৈশব কাল বিষয়ে ক ও খ গ্রুপে অনুষ্ঠিত প্রতিযোগিতা সমূহে বিজয়ীদের হাতে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিরা পুরষ্কার তুলে দেন।

প্রতিযোগিতায় বিজয়ীরা হলোঃ হামদ-নাত প্রতিযোগিতা “ক” বিভাগে প্রথম স্থান অধিকার করেছে রাঙামাটি মডেল কেজি স্কুলের শিক্ষার্থী ফাতিমা নূর, দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেছে লেকার্স পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থী সাকিবা নূর, তৃতীয় স্থান অধিকার করেছে রাঙামাটি ইন্টারন্যাশনাল রেসিডেন্সিয়াল স্কুলের শিক্ষার্থী আরিজ ফাতিরা।

“খ” গ্রুপে প্রথম স্থান অধিকার করেছে বায়তুশ শরফ আদর্শ জাব্বারিয়া দাখিল মাদরাসার শিক্ষার্থী আব্দুল মজিদ, দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেছে লেকার্স পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজে’র শিক্ষার্থী জাফরানা আফরিন জুবিন, তৃতীয় স্থান অধিকার করেছে জিহাদুল ইসলাম।

হযরত মুহাম্মদ (স.) এর জীবনী সম্পর্কিত রচনা প্রতিযোগিতার “ক” বিভাগে প্রথম স্থান অধিকার করেছে রাঙামাটি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী জাহিদুল ইসলাম, দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেছে লেকার্স পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজে’র শিক্ষার্থী তাশরিফুল তারেক, তৃতীয় স্থান অধিকার করেছে লেকার্স পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজে’র শিক্ষার্থী সানজিদা আক্তার।

“খ” বিভাগে “ক” বিভাগে প্রথম স্থান অধিকার করেছে রাঙামাটি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সুমাইয়া আক্তার (স্নেহা), দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেছে “ক” বিভাগে প্রথম স্থান অধিকার করেছে রাঙামাটি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তাসমিনা জেরিন, তৃতীয় স্থান অধিকার করেছে বায়তুশ শরফ আদর্শ জাব্বারিয়া দাখিল মাদরাসার শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ জিদান।