ফলোআপ>রাইফেলের গুলিতেই খুন হয়েছে জেএসএস’র কালেক্টর বিক্রম(ভিডিও)

॥ আলমগীর মানিক:হৃদয়-মাহিন ॥

সামনে থেকে দুই হাতে এবং বুকের এক পাশ দিয়ে অন্তত তিন রাউন্ড গুলি চালিয়ে হত্যা করা হয়েছে জেএসএস এর চীফ কালেক্টর বিক্রম ওরফে সুমন চাকমাকে। রোববার সকালের কোনো এক সময়ে তাকে উক্ত স্থানে নিয়ে এসে গুলি করে হত্যা শেষে লাশটি ফেলে রেখে যায় পাহাড়ি সন্ত্রাসীরা।রোববার দুপুরে রাঙামাটি সদর উপজেলাস্থ আসামবস্তি-কাপ্তাই সড়কের বড় আদম এলাকায় এই ঘটনা ঘটায়।

কোতয়ালী থানা পুলিশ রোববার আড়াইটার সময় নিহতের লাশ উদ্ধার করে প্রাথমিক সুরতহাল শেষে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ নির্ণয়ে নিহতের মরদেহ রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এদিকে পার্বত্য শান্তিচুক্তির বর্ষপূর্তির মাত্র একদিন আগে আবারো রক্তাক্ত হয়েছে পাহাড়। গুলি করে হত্যা করা হয়েছে জেএসএস শীর্ষ পর্যায়ের চাঁদা কালেক্টরকে।

রোববার দুপুর আড়াইটার সময় ২নং মগবান ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের গোলাছড়ি এলাকার অমিয় রঞ্জন চাকমার বাড়ির পেছন থেকে নিহতের গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করে রাঙামাটি কোতয়ালী থানা পুলিশ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, মূলত: রাইফেল জাতীয় আগ্নেয়াস্ত্র দিয়েই বিক্রমকে হত্যা করা হয়েছে। উদ্ধারকৃত গুলির খোসাগুলো দেখে সেরকমটাই মনে করছেন তিনি।

কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ মীর জাহেদুল হক রনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, আমরা স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে লাশটি উদ্ধার করেছি। প্রাথমিক সুরতহাল শেষে লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হবে। এদিকে ঘটনাস্থল থেকে রাইফেলের চার রাউন্ড গুলির খোসা পড়ে থাকা অবস্থায় পেয়েছে পুলিশ। নিহতের দুই হাতে, বুকের এক পাশে গুলির চিহ্ন দেখা গেছে।

স্থানীয় দোকানীরা জানিয়েছে, কয়েকজন মুখোশপড়া পাহাড়ি যুবক সশস্ত্র অবস্থায় বিক্রমকে নিয়ে এসে গুলি করে মৃত্যু নিশ্চিত করে মরদেহ ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। এসময় ভয়ে কেউ এগিয়ে আসেনি। স্থানীয় কয়েকজন জানিয়েছেন, অন্তত ৫ থেকে ৬ রাউন্ড গুলির আওয়াজ তারা শুনেছেন।

এদিকে স্থানীয় একটি সূত্র থেকে জানাগেছে, নিহতের নাম বিক্রম চাকমা ওরফে সুমন চাকমা। তার বাড়ি রাঙামাটি শহরের রাঙ্গাপানি এলাকায়। এইচএসসি পর্যন্ত পড়ালেখা বিক্রম জেলার কাউখালী ও ঘাগড়া এলাকায় চাঁদা আদায়ের কাজ করতো।

কয়েক মাস আগে রাঙামাটির শীর্ষ চাঁদাবাজ জ্ঞান শংকর চাকমা নিহত হওয়ার পর তার স্থানে দায়িত্ব পায় বিক্রম। পরবর্তীতে সে চীফ কালেক্টর হিসেবে কাজ করতো। নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানের মুখে নিজ এলাকা থেকে সটকে গিয়ে আত্মগোপনে ছিলো বিক্রম।

স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে, স্বগোত্রিয় সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের হাতেই নিহত হয়েছে বিক্রম চাকমা। রোববার ভোর রাতের কোনো এক সময় তাকে গুলি করে হত্যা করে বড় আদমের অদূরে একটি দোকানের পেছনে লাশ ফেলে রেখে যায় সন্ত্রাসীরা।

পার্বত্য শান্তিচুক্তির ২২তম বর্ষপূর্তির ১ দিন আগে এই্ ধরনের রক্তপাতের ঘটনায় স্থানীয় বাসিন্দাদের মাঝে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। এলাকায় জোরদার করা হয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর টহল।

খুন হয়েছে জেএসএস’র কালেক্টর বিক্রম(ভিডিও)

রাইফেলের গুলিতেই খুন হয়েছে জেএসএস’র কালেক্টর বিক্রম(ভিডিও)http://www.chttimes24.com/?p=72004&preview=true

Posted by ChtTimes24.com on Sunday, 1 December 2019