এক সাথে ৫ জন চিকিৎসক বদলীঃ চরম দুর্ভোগে রোগীরা!

॥ হাটহাজারী প্রতিনিধি ॥

চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলা ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে চিকিৎসক সংকট চলছে। হঠাৎ করে এক সাথে কয়েকজন জুনিয়র কনসাল্টেন্ট বদলী হওয়ার পরে দুর্ভোগে পড়েছে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা। পদোন্নতিজনিত কারনে এই হাসপাতালটি থেকে এক সাথে ৫জন চিকিৎসক অন্যত্র বদলী হওয়ায় এই সংকটের সৃষ্টি হয়। এর মধ্যে দুইজন শিশু কনসালটেন্ট ছিল। এই অবস্থায় হাসপাতালের চিকিৎসাসেবা স্বাভাবিক রাখতে হাসপাতালে থাকা অন্য চিকিৎসকরা হিমসিম খাচ্ছেন। এতে করে রোগীদেরকেও ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। গত শুক্রবার (৬ ডিসেম্বর) বদলীকৃতদের হাসপাতাল থেকে বিদায় দেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ আবু সৈয়দ মোহাম্মদ ইমতিয়াজ হোসাইন।

শনিবার(৭ ডিসেম্বর) সকালে হাসপাতাল ঘুরে দেখা যায়, চিকিৎসক সংকটের কারনে আউট ডোর শত শত রোগী দীর্ঘ লাইন ধরে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তবে চিকিৎসক সংকটের কারনে অনেকেই বিরক্তবোধ হয়ে হাসপাতাল থেকে বিনা চিকিৎসায় ফিরে যাচ্ছেন অনেকেই। আর এই সুযোগ নিচ্ছেন স্থানীয় প্রাইভেট হাসপাতাল। পার্শবর্তী উপজেলা রাউজান গহিরা ধলইনগর থেকে আসা নাইমা হোসেন(২৫) বলেন,ভালো চিকিৎসার কারনে এই হাসপাতালে আমরা চিকিৎসা নিতে এসেছি কিন্ত আজ শিশু কনসালটেন্ট না থাকায় আমরা ফিরে যেতে হচ্ছে। এই হাসপাতালের চিকিৎসা আর যোগাযোগ সুযোগ সুবিধার কারনে পার্শ্ববর্তী উপজেলা ফটিকছড়ি ও রাউজান উপজেলা থেকে রোগীরা চিকিৎসার জন্য হাটহাজারী উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসেন। এই তিন উপজেলা সুবিধাজনক স্থান হাটহাজারী উপজেলা হাসপাতাল।

বদলী হওয়া ডাক্তারদের মধ্যে যারা বদলী হয়েছেন তাদের মধ্যে ডাঃ আব্দুল হাই জুনিয়র কনসালটেন্ট অর্থো সার্জারী), ডাঃ মুনা ইসলাম জুনিয়র কনসাল্টেন্ট(মেডিসিন),ডাঃ রিফাত জাহান জুনিয়র কলসালটেন্ট(শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক),ডাঃ আনিসুর রশীদ (শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক)। কয়েক মাস আগে পদোন্নতিজনিত কারনে বদলী হয়েছেন কলসালটেন্ট ডাঃ সেখ মামুন। এই পাচঁ জন চিকিৎসক বদলী হওয়ায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন হাসপাতালে আসা রোগীরা।
সরেজমিন হাসপাতাল বহির্বিভাগে ঘুরে রোগীদের দীর্ঘ লাইন দেখা যায়,চিকিৎসারত আবাসিক অফিসার ডাঃ মোঃ মাহতাব উদ্দিন আহমদ বলেন,কয়েকজন চিকিৎসক বদলী আর ইজতিমার ডিউটির কারনে আজ একটু রোগীদের চাপ ছিল।
মোঠো ফোনে কথা হয় উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ আবু সৈয়দ মোহাম্মদ ইমতিয়াজ হোসাইন সাথে তিনি ৫জন চিকিৎসক পদোন্নতি হওয়ার কারনে বদলী হয়েছে বলে জানান।

চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন সার্জন ডাঃ ফজলে রাব্বী এ প্রতিবেদকে জানায়,রোগীদের কথা বিবেচনা এনে হাসপাতালে আগামী জানুয়ারী মাসে আরো কয়েক জন চিকিৎসক দেওয়ার আশ্বাস দেন ।