ভাসুরের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানীর মিথ্যা মামলা দেওয়ায় নারীর ৭দিনের কারাদন্ড!

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

ভাসুর ও তার দুই ছেলের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানিসহ মারধরের মিথ্যা মামলা দায়ের করার ঘটনায় ঐ মামলার বাদীকে সাত দিনের কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। রবিবার(১২ জানুয়ারি) রাঙ্গামাটি চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জনাব, এ.এন.এম. মোরশেদ খান এর আদালত এই রায় দেন। বাদী ঝর্ণা কর এর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা ইস্যু করা হয়েছে। মিথ্যা মামলা দায়ের করায় এ নিয়ে গত এক মাসে চারটি মামলায় চার জন বাদীর বিরুদ্ধে কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত।

আদালতের বেঞ্চ সহকারী মনজুরুল ইসলাম জানান, শহরের দক্ষিণ কালিন্দীপুরের বাসিন্দা ঝর্ণা কর(৪৫) বাদী হয়ে রাঙ্গামাটির কোতয়ালী থানায় ২০১৫ সালের ২৯ জুলাই মামলাটি করেন। এতে তার ভাসুর নেপাল কর (৭৫) ও ভাসুরের পুত্র তন্ময় কর প্রকাশ বাবু (৩৫) ও চিত্ময় কর প্রকাশ টনি (২৮) এর বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানিসহ মারধরের অভিযোগ এনেছেন। তদন্ত শেষে তিন জনকেই অভিযুক্ত করে পুলিশ ২০১৫ সালে ০৩ নভেম্বর আদালতে চার্জশীট দাখিল করে। ২০১৬ সালের ২৭ জুন আসামীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরু করেন আদালত।

সাক্ষ্য শেষে গেলো ২৩ ডিসেম্বর ওই মামলার রায়ে আসামীদের খালাস দেন আদালত। কিন্তু মামলার স্বাক্ষীদের সাক্ষ্যে মামলাটি মিথ্যা প্রমাণিত হওয়ায় রায় ঘোষণার দিনেই বাদীকে আদালত শোকজ করেন। কেন মিথ্যা মামলা দায়ের করেছেন তার ব্যাখ্যা দিতে নির্দেশ দেন।

বাদীর প্রতি ইস্যুকৃত কারণ দর্শানোর নোটিশ জারী হওয়া সত্ত্বেও রবিবার (১২ জানুয়ারি) আদালতে হাজির না হওয়ায় এবং নোটিশের কোন ব্যাখ্যা প্রদান না করায় মিথ্যা মামলা দায়ের করায় বাদী ঝর্ণা করকে ১৮৯৮ সালের ফৌজদারী কার্যবিধির ২৫০ (২) (৫) ধারায় সাত দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও এক হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো সাত দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ডের রায় দেন।