সারাদেশে নারী ও শিশু ধর্ষণের প্রতিবাদে কলেজ শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

রাঙামাটিতে সারাদেশে নারী-শিশু ধর্ষণ ও নৃশংস হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে রাঙামাটি সরকারি কলেজের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার সকাল ১০টায় সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে কলেজের মূল ফটকের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এসময় কলেজের শিক্ষকবৃন্দরাও একত্মতা প্রকাশ করে মানববন্ধনে অংশ নেয়।

প্রতিবাদ সমাবেশে আয়োজক ও বক্তারা বলেন, ঘরে-বাইরে, রাস্তাঘাটে, যানবাহনে, কর্মক্ষেত্রে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সবখানে নারী ও শিশুর প্রতি নির্যাতন চলছে। ধর্ষণ ও যৌন হয়রানি ছাড়াও এসিড আক্রমণসহ নানাবিধ সহিংসতার শিকার হচ্ছেন তারা। পরিবার, সমাজ, রাষ্ট্র এমনকি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছেও নিরাপদ নয় নির্যাতনের শিকার হওয়া নারী ও শিশু।

বক্তরা আরো বলেন, দেশের প্রতিটি নারী ও শিশু সহিংসতার ঝুঁকির মধ্যে রয়েছেন। এর মূল কারণ নারীকে মানুষ হিসেবে মূল্যায়ন না করার দৃষ্টিভঙ্গি ও আচরণ। আদিকাল থেকেই আমাদের দেশে ও সমাজে নারীকে অধস্থন অবস্থানে দেখা হয় বলেই এমনটা হচ্ছে। এছাড়া মামলার দীর্ঘসূত্রতা যেমন ন্যায়বিচার প্রাপ্তিকে অনিশ্চিত করে তেমনি তড়িঘড়ি নিষ্পত্তি ন্যায়বিচারকে প্রশ্নবিদ্ধ করে।

সুনীল কান্তি চাকমার সভাপতিত্বে মানববন্ধনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রফেসর তুষার কান্তি বড়ুয়া। বক্তব্য রাখেন ছাত্রলীগ নেতা হাসান মুরাদ ও দীপংকর দে, ছাত্রদল নেতা মঈন উদ্দীন, ছাত্র ইউনিয়ন নেতা নিউটন চাকমা, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের কৃপায়ন ত্রিপুরা, মারমা স্টুডেন্টস কাউন্সিলের মংশিচিং মারমা,  ত্রিপুরা স্টুডেন্টস ফোরামের বিকাশ ত্রিপুরা, উন্মেষের পক্ষ হতে বিদ্যুৎ চাকমা। এছাড়া কলেজ শিক্ষার্থীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন প্রিয়ম আইচ, উক্র্যাচিং মারমা ও তাহমিনা আক্তার।

সমাবেশে বক্তারা নারী ও শিশুর ওপর ধর্ষণসহ সবধরনের অত্যাচার বন্ধের আহ্বান জানান। মানববন্ধন ও সমাবেশে নানা সংগঠনের কর্মী, সাধারণ মানুষ, শিক্ষার্থীসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।