খাগড়াছড়িতে ঘুমন্ত অবস্থায় আগুনে পুড়ে দুই সহোদরের নির্মম মৃত্যু

॥ খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ॥

মানিকছড়ি উপজেলার বাটনাতলী ইউনিয়নের অন্তর্গত সেম্প্রপাড়ার প্রত্যন্ত এলাকার লিপিয়া পাড়া নামক স্থানে নানার বাড়িতে ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় আগুনে পুড়ে দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার (২২ জানুয়ারি) রাত আনুমানিক সাড়ে ১০টার দিকে লিপিয়া পাড়া এলাকার মেমং মারমার দুই সন্তান ছেলে মংশালা মারমা (১১) ও মেয়ে ওম্রা মারমা নানার বাড়িতে ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় আগুনে পুড়ে মারা যান। রান্না ঘরের আগুন থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত ঘটে। তড়িঘড়ি করে তাদের মামা ঘর থেকে বেড়িয়ে গেলেও বের হতে পারেনি দুই শিশু মংশালা মারমা ও ওম্রা মারমা।

নিহতদের পিতা মেমং মারমা জানান, আগুনে পুড়ার সময় তার শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে আসা মেহমানদের সাথে কথাবর্তা বলছিল। অপর দিকে তার শ্যালক ও তার দুই সন্তান রান্না ঘরে ঘুমাচ্ছিল। হঠাৎ বাহিরে আগুনের লেলিহান শিখা ও ধোয়া দেখতে পেয়ে বেরিয়ে আসলে তাৎক্ষণাত সম্পূুর্ণ ঘরে আগুন লেগে যায়।

তিনি আরও বলেন, ঘরের মধ্যে থাকা শ্যালক বেরিয়ে আসতে পারলেও ঘুমন্ত অবস্থায় থাকা তার দুই সন্তান আগুনে পুড়ে মারা যায়। এছাড়াও ঘড়ে থাকা প্রায় ৬৫ মণ ধান পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

ঘটনাস্থলে ছুটে যান মানিকছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুবাইয়া আফরোজ, ২নং বাটনাতলী ইউপি চেয়ারম্যান মো. শহিদুল ইসলাম মোহন, শিক্ষা অফিসার মো. নজরুল ইসলাম, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. কামাল উদ্দিনসহ এলাকার জনপ্রতিনিধিরা। ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে নিহতের পিতা মেমং মারমার হাতে কম্বল, শুকনা খাবার ও আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন।