বোট ডুবিতে নিহতদের আত্মার শান্তি কামনা করলেন আ’লীগ নেতা সন্তোষ চাকমা

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

রাঙ্গামাটির কাপ্তাই হ্রদ ও কর্ণফুলি নদীতে মর্মান্তিক ইঞ্জিন বোট ডুবির ঘটনায় নিহতদের আত্মার শান্তি কামনা এবং শোকাহত স্বজনদের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করে শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যায় ব্যাক্তিগত উদ্দ্যেগে মোমবাতি প্রজ্ঝলন করে শোক প্রকাশ করেছেন রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও বরকল উপজেলা পরিষদের প্রাক্তন চেয়ারম্যান সন্তোষ কুমার চাকমা।

শহরের কাটা পাহাড় এলাকার কাপ্তাই হ্রদের পাড়ে ফুল ও প্রজ্জলিত মোববাতি জ¦ালিয়ে কিছুক্ষন নীরবতা পালন করা হয়।

এ সময় কাপ্তাই হ্রদ ও কর্ণফুলি নদীতে মর্মান্তিক ইঞ্জিন বোট ডুবির ঘটনায় নিহতের বিদেহী আত্মার সুখ, শান্তি ও সৎগতি কামনা করে শোক ও মোমবাতি প্রজ্জলন কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করে সদর যুবলীগের অর্থ সম্পাদক রাসেল কুমার দে, এ্যাডভোকেট বিপ্লব চাকমা, আওয়ামীলীগের প্রাক্তন নেতা প্রভাত কুমার দেব’সহ বিভিন্ন এলাকার নারী-পুরুষ।

এ সময় রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক সন্তোষ কুমার চাকমা বলেন, বিগত বছরগুলোর দিকে ফিরে তাকালে দেখা যায়। সাঁতার না জানা অনেক পর্যটক এখানে এসে গোসল করতে নেমে বা দূর্ঘটনায় প্রাণ হারায় যা কারো কাম্য নয়। এ বিষয়ে প্রশাসনকে আরো সতর্ক অবস্থান ও সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। বিশেষ করে এখানকার স্থানীয় যেসকল বোট চালক রয়েছে তাদের প্রশিক্ষণ ও নিজ নিজ বোটে লাইফ জ্যাকেট রাখা বাধ্যতামূলক করতে হবে। প্রয়োজনে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার মাধ্যমে টুরিষ্ট বোটে লাইফ জ্যাকেট রয়েছে কিনা এবং তা পর্যটকরা ব্যাহার করছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে হবে। তাবেই এ ধরনের দূর্ঘটনা কমে আসবে। সাঁতার প্রশিক্ষন প্রদানের বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের আরো জোরালো পদক্ষেপ গ্রহনের আহ্বান জানান তিনি।

উল্লেখ, শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে রাঙ্গামাটি সদরের কাপ্তাই হ্রদে চট্টগ্রাম ইপিজেট থেকে আসা পর্যটকেরা পর্যটন এলাকা থেকে ইঞ্চিন চালিত বোটে করে শুভলং ঝর্ণায় ঘুরতে বের হয়। এসময় ডিসি বাংলোর পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় হঠাৎ বোটটি উল্টে ডুবে যায়। এতে ৫ জন নিহত হয় এবং কাপ্তাই চন্দ্রঘোনায় কয়লার ডিপু সংলগ্ন কর্ণফুলি নদীতে চট্টগ্রাম থেকে আসা আন্তর্জাতিক কৃষ্ণ ভাবনামৃত সংঘ(ইসকন)’র একটি পর্যটকবাহী ইঞ্জিন বোট ডুবে যায়। দুর্ঘটনায় ১জন নিহত ও ২জন এখনও নিখোঁজ রয়েছে। নিখোঁজদের উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।