ভাষা দিবসে জীবন’র ব্লাড গ্রুপিং ও ভিন্নধর্মী আয়োজন ‘বাংলাজান্তা’

॥ নিজস্ব প্রতিবেদক ॥

জাগরণে ২১ এর প্রতিপাদ্য – “জাগ্রত যে বিবেক, সেই জাগরণে ২১”। এই প্রতিপাদ্যকে সার্থক করতে ব্যতিক্রমধর্মী আয়োজনে ২১শে ফেব্রুয়ারি দিনব্যাপী কর্মসূচি হাতে নিয়েছে সংগঠন ‘জীবন’। একুশের প্রথম প্রহরে রাঙামাটি প্রেস ক্লাব হতে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার পর্যন্ত প্রভাতফেরীতে অংশ নেন সংগঠনের সদস্যরা। শহীদ বেদীতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে নিজেদের স্টলে মিলিত হন সংগঠনের সদস্যরা।
জীবন এর উদ্যোগে বিনামূল্যে ব্লাড গ্রুপিং ও স্বেচ্ছাসেবী রক্তদাতা সংগ্রহ কার্যক্রম পরিচালিত হয়। সকাল ৭টা হতে দুপুর ১২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত প্রায় শতাধিক মানুষ রক্তের গ্রুপ জেনে নিয়েছেন।
বিকালে বাংলা ভাষার দক্ষতা নিয়ে আয়োজন করা হয় ‘বাংলাজান্তা’। বাংলায় বলি, বাংলাকে জানি এই প্রতিপাদ্যে পাহাড়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে বাংলা ভাষার মৌলিক প্রশ্নপত্রে ২১টি প্রশ্নের জন্য মোট ৫২ মিনিট সময় পায় প্রত্যেক শিক্ষার্থী। বিকাল ৪টায় শুরু হয়ে ৪টা ৫২ মিনিটে প্রতিযোগিতা শেষ হয়। বাংলাজান্তার ম্যাসকট বাঘা এর সাথে ছবি তোলায় শিশু-কিশোরদের মাঝে আগ্রহ ও উদ্দীপনা ছিলো বেশ।
বিকাল ৫টায় পুরষ্কার বিতরণীতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাঙামাটি সদর উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাসরিন ইসলাম, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাঙামাটি পাবলিক কলেজের প্রভাষক ও জীবন এর উপদেষ্টা আদনান পাশা সূজা, প্রিয় রাঙামাটির সভাপতি ফাতেমা তুজ জোহরা রেশমী এবং সভাপতিত্ব করেন জীবন এর সহ-সভাপতি ইউনুছ সুমন।
এসময় বক্তারা বাংলা ভাষার শুদ্ধ চর্চা ও বাংলার সঠিক প্রয়োগে বিশেষ গুরুত্ব দিতে সকলের প্রতি অনুরোধ জানান। সঞ্চালক সাজিদ-বিন-জাহিদ (মিকি) বাংলা ভাষা ব্যবহার করার ক্ষেত্রে যেসকল প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হচ্ছে বর্তমান প্রজন্ম তা নিরসনে সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানান। প্রাথমিক পর্যায় থেকে দুইজন, মাধ্যমিক থেকে দুইজন এবং উচ্চ মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা পর্যায় থেকে তিনজন বাংলাজান্তা প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হয়েছেন।