বারি পেঁয়াজ-৫ এ অর্থনৈতিক মুক্তির পথ দেখছে খাগড়াছড়ির কৃষকেরা

॥ খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ॥

পাহাড়ি এলাকায় গ্রীষ্মকালীন বারি পেঁয়াজ-৫ মাঠ প্রদর্শণী অনুষ্ঠিত হয়েছে খাগড়াছড়িতে। শনিবার সকালে খাগড়াছড়ি পাহাড়ি কৃষি গবেষনা কেন্দ্রের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মুন্সি রাশীদ আহ্মদ এর সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন, উপজাতীয় শরণার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্স চেয়ারম্যান কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা এমপি।

এ সময় পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের মসলা প্রকল্পের কনসালটেন্ট ড.মো: মহব্বত উল্ল্যাহ, খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ সদস্য মংক্যচিং চৌধুরী,মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু,এড. আশুতোষ চাকমাসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিরা এতে অংশ নেয়।

খাগড়াছড়ি পাহাড়ি কৃষি গবেষনা কেন্দ্র ও পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের বাস্তবায়নে উদ্ভাবীত বারি পেঁয়াজ-৫ এর মাঠ প্রর্দশনী শেষে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি বলেন, পেঁয়াজের শঙ্কট কাটাতে উদ্ভাবীত বারি পেঁয়াজ-৫ কাজে লাগানো গেলে পাহাড়ে অর্থনৈতিক অর্জন সম্ভব। তাই সকলের সহযোগিতায় শুধু পেঁয়াজ নয় সব ধরনের শঙ্কট মোকাবেলা সম্ভব।

এ সময় তিনি আরো বলেন, নিজেদের অর্থনৈতিক ভাবে স্বাভলম্বী করতে হলে উদ্ভাবীত পেঁয়াজ চাষাবাদকে কাজে লাগানো সম্ভব। এ জন্য পারস্পারিক সহযোগিতা ও দেশ ও জনগণের উন্নয়নে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

উদ্ভাবীত বারি পেঁয়াজ-৫ বছরে ৩ বার করা যাবে বলে জানান পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের মসলা প্রকল্পের কনসালটেন্ট ড.মো: মহব্বত উল্ল্যাহ।