একজন মেয়র যখন অভিভাবক

॥ খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ॥

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও সাধারণ মানুষকে খাদ্য নিশ্চিতের লক্ষে সরকারি নির্দেশনায় ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিতে বিরামহীনভাবে কাজ করে চলেছে খাগড়াছড়ি পৌরসভার মেয়র রফিকুল আলম।

দিনের পর দিন বিশ্রামহীন ব্যস্ত সময় কাটছে মেয়র ও কাউন্সিলরদেরও। দুর্যোগ ও ত্রান মন্ত্রণালয়ের বিশেষ বরাদ্দ পাওয়ায় পর লোকবল বাড়ীয়ে তিনি ছুটছেন পৌরবাসীর ঘরে ঘরে। মঙ্গলবার সকাল থেকে খাগড়াছড়ির পৌরসভার ওয়ার্ড থেকে শুরু করে পাড়া-মহল্লায় তালিকা অনুসরণ করেন ১০ কেজি চাল ও ২ কেজি করে আলু অসহায়-কর্মহীন মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিচ্ছেন মেয়র।

খাগড়াছড়ি জেলা সদরের শালবন মোহাম্মদপুর,এডিসিহিল,আঠার পরিবার,বাঙ্গালকাটি এলাকায়সহ বিভিন্ন প্রায় ৯৫০ পরিবারকে আহার তুলে দেন তিনি। এ সময় মেয়র রফিকুল আলম করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতামুলক নানা নির্দেশনা তুলে ধরে পৌরবাসী ও নাগরিকদের সচেতন করে তোলেন।

পাশাপাশি এলাকার যুব সমাজকে করোনা প্রতিরোধে এলাকায় এলাকায় সাবান দিয়ে হাতধোয়া,মাস্ক ব্যবহারসহ সামাজিক দুরত্ম বজায় রাখা ও সবোর্চ্চ সর্তকতা অবলম্বনে সকলের প্রতি আহ্বান জানান। যেখানে একজন অভিভাবক তার সন্তানদের আহার তুলে দিতে চিন্তিত তেমনি চোখে-মূখে চিন্তার ছাপ দেখা যায় খাগড়াছড়ি পৌর মেয়র রফিকুল আলমের চোখেও।