শাটার ফেলে ভেতরে দিব্যি চলছে ব্যবসাঃ মামলা দিলো ভ্রাম্যামান আদালত

॥ কাপ্তাই প্রতিনিধি ॥

কাপ্তাইয়ের নতুন বাজার এলাকায় সোমবার (৬ এপ্রিল) সকালে সরকারি নিয়ম না মেনে দোকান খোলার অপরাধে ৫ দোকানী ও ক্রেতাকে সর্বমোট ৭’হাজার ৯’শ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যামান আদালত। এছাড়া মামলা করা হয়েছে ৬জনের বিরুদ্ধে।

এসময় নতুন বাজারের মা বোকরীর নজরুল ইসলামকে ৩’হাজার, কুমকুম ষ্টোরের সাধন দাশকে ২’হাজার, মনিহার স্টুডিও’র টিটু কুমার নাথকে ৫’শ, জনতা ইলেক্ট্রনিক্সের আব্দুল হালিমকে দেড় হাজার, মো. ইকবাল হোসেন নামক পান ব্যবসায়ীকে ৫’শ টাকা সহ মো. সোহেল এবং মো. হানিফ নামক দুই ক্রেতাকে ৪’শ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। দন্ডবিধি ২৬৯ ধারা মতে তাদের এ অর্থ দন্ড দেওয়া হয়েছে বলে জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশ্রাফ আহম্মেদ রাসেল।

সেনাবাহিনী ও পুলিশে সহযোগিতায় ভ্রাম্যামান আদালত পরিচালনা করেন, কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আশ্রাফ আহম্মেদ রাসেল। এসময় পেশকারের দায়িত্ব পালন করেন, নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের অফিস সুপার মো. সিরাজুল ইসলাম।

কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আশ্রাফ আহম্মেদ রাসেল বলেন, নতুন বাজার এলাকায় সরকারি নিয়ম না মেনে ঝাপ ফেলে গোপনীয় ভাবে বিক্রয় কার্যক্রম চলমান রাখায় ৫জন দোকানী ও ২জন ক্রেতাকে জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া উক্ত দোকানীদের বিরোদ্ধে মামলাও করা হয়েছে। পরে তাদের কাছ থেকে এমন কার্য আর না করতে নেওয়া হয় অজ্ঞিকার নামা। সকলকে বাড়িতে থাকতে অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি। অন্যথায় বাড়ি থেকে বিনা প্রয়োজনে বের হলে করা হবে জরিমানা।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রোধে তরকারি, মুদি দোকান ও ফার্মেসী ছাড়া সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দোকান ছাড়া বাকি সব প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে নির্দেশনা দেওয়া হলেও মানছেনা বিক্রেতারা। ঝাপ ফেলে ভিতরে ক্রেতাকে নিয়ে বিক্রয় করছে দেদারছে। মানা হচ্ছেনা সামাজিক দূরত্বও। বাড়ি থেকে বের হয়ে মানুষ জড়ো করে সাজানো হয় আড্ডার আসর। প্রশাসন সুত্র বলছে এদের বিরুদ্ধে নেওয়া হবে কঠোর পদক্ষেপ।