স্বেচ্ছায় লকডাউন হলেন আমানতবাগ এলাকার বাসিন্দারা

॥ আব্দুল নাঈম মোহন ॥

দেশে সরকারের লক ডাউন ঘোষনার পর হতে, দেশের বিভিন্ন এলাকায় এলাকাবাসীর নিজ উদ্যোগে লক ডাউন ঘোষনা করা হয়, তখনো সচেতন হয়নি কিছু এলাকা, গত ৫ এপ্রিল ২০২০ সালে দেশে ২৪ ঘন্টায় যখন করোনা রোগী বেড়ে ১৮ জন এ পৌঁছেছে তখনি সারাদেশে আতংক ছড়িয়ে পরে, প্রশাসন আগের চেয়েও অনেকটা কঠোর হয়ে পড়েছে, প্রতি এলাকায় এলাকায় গিয়ে মানুষকে বোঝাচ্ছে করোনা সম্পর্কে, এবং সবাইকে হাত জোর করে বলছে ঘরে থাকতে, সে বিষয়কে কেন্দ্র করে “আমানতবাগ তরুণ সামাজিক সংগঠন” নামে একটি সংগঠন এলাকাবাসীদের সাথে নিয়ে ‘এলাকা লক ডাউন ঘোষনা করে, তারা এলাকার প্রতিটা মোড়ে মোড়ে বাঁশ বেধে বাঁশের উপর কাগজ দিয়ে লিখে দিয়েছে “বহিরাগতদের প্রবেশ নিষেধ” সংগঠনটি কিছু দিন আগে আমানতবাগ এলাকার প্রায় শতাধিক পরিবারকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করেন। সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদকঃ মোঃ আব্দুল নাঈম মোহন এর কাছে এলাকায় বাঁশ বেঁধে লক ডাউন কেন করছে সে বিষয়ে জানতে চাওয়ায় তিনি জানায় গত কাল ৫এপ্রিল সারা দেশে করোনা পজিটিভ রোগী ১৮ জন হওয়ায় তারা খুব বেশি চিন্তিত হয়ে পরেছেন, রোগীর সংখ্যা ধীরে ধীরে বেড়েই চলেছে তাই তারা ৬ এপ্রিল সকালেই এ ধরনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন, বহিরাগত বা অন্য এলাকার মানুষ যেন এ এলাকা দিয়ে চলাচল না করে সে জন্য তারা এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে এবং এ বিষয়ে এলাকাবাসীকে কঠোর হতে আহবান করেছেন তিনি, তিনি আরো জানান প্রত্যেক এলাকায় যদি এভাবে এলাকাবাসীরা নিজ উদ্যোগে লক ডাউন ঘোষনা করেন তবে হয়তো রোগ টা এলাকার দিকে আসার সম্ভবনা খুবই কম। যতদিন করোনা স্বাভাবিক না হচ্ছে ততদিন তাদের এ সিদ্ধান্ত অটল থাকবে বলে জানা গেছে।