ব্রেকিং নিউজ

কোভিড-১৯ হাসপাতালে ১ লক্ষাধিক টাকা অনুদান

॥ সীরাত মঞ্জুর ॥

ফটিকছড়ি চট্টগ্রামের একটি বৃহত্তর উপজেলা, আকারে যেমন বড় জনসংখ্যাও অধিক,  করোনার এই পরিস্থিতিতে চট্টগ্রামের প্রায় সবকটি হাসপাতালে করোনা চিকিৎসার বেহাল দশা। ফটিকছড়িবাসি যাতে চিকিৎসার মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত না হয় সে জন্য ২০শয্যা হাসপাতালকে কোভিড-১৯  হাসপাতালে রূপান্তর করার তাগিদে ফটিকছড়ি মানুষের প্রতি ফান্ড গঠনের জন্য আর্থিক সহায়তার আহবান করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার, এর পর থেকে বিভিন্ন ব্যক্তি,সংগঠন আর্থিক অনুদান নিয়ে আসতে শুরু করেন, তারই ধারাবাহিকতায় এবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ সায়েদুল আরেফিন এর নিকট ১,০৫০০০ (এক লক্ষ পাঁচ হাজার) অনুদান নিয়ে আসলেন সুন্দরপুর ইউপি হরিণাদিঘীর আয়েশা-হক ফাউন্ডেশন ও দিয়া-দিহানের পরিবার।

গত ১লা জুলাই (বুধবার)  বিকেলে উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে আয়েশা-হক ফাউন্ডেশন ও দিয়া-দিহানের পক্ষে এ ১,০৫,০০০ টাকার চেকটি ফটিকছড়ি নির্বাহী অফিসার মোঃ সায়েদুল আরেফিনের নিকট হস্থান্তর করেন চট্টগ্রাম ওয়াসার অবসরপ্রাপ্ত ডিএমডি, ফাউন্ডেশনটির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান গোলাম হোসেন। এসময় সাথে ছিলেন ফাউন্ডেশনটির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য আমেরিকান প্রবাসি মোঃ সিরাজুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, আয়েশা-হক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে সামাজিক,  গরীব দুস্থদের সহায়তা, গরীব মেয়েদের বিয়ে দেয়াসহ  বিভিন্ন ধরনের কাজে সহযোগিতা করে আসছে।
দিয়া ও দিহান মহরহু নুরুল হক সও: ও আয়েশা খাতুন এর দৌহিত্র এবং গোলাম হোসেন এর এক মাত্র ছেলে-মেয়ে।

সম্প্রতি ফটিকছড়ি ২০ শয্যা হাসপাতালকে কোভিড-১৯ হাসপাতাল করার ঘোষণা দেন ফটিকছড়ির সাংসদ আলহাজ্ব সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী। এই হাসপাতালের ব্যয় ভার বহনের জন্য একটি ফান্ড গঠন করা হয়।এই ফান্ডে নিজ নিজ অবস্থান থেকে সহযোগীতার জন্য ফটিকছড়ির বিত্তশালীদের প্রতি আহবান জানান উপজেলা নির্বাহী অফিসার সায়েদুল আরেফিন। ইতিমধ্যে দেশ বিদেশের অনেকে উনার আহবানে সাড়া দিয়ে কোভিড-১৯ (করোনা) হাসপাতাল ফান্ডে সাধ্যমত অর্থ দিয়েছেন।