ব্রেকিং নিউজ

স্মার্টফোন কেনার টাকা দিয়ে ফার্ম দিলো খাগড়াছড়ির দুই সহোদর

॥ খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ॥

খাগড়াছড়ির দীঘিনালা বাবুছড়া ইউনিয়নে ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পড়ুয়া দুই ভাই। সজীব চট্টগ্রাম শ্যামলী আইডিয়েল কলেজে ও সৌরভ ফেনী আইসিএসটি কলেজের ডিপ্লোমা সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং শেষবর্ষের শিক্ষার্থী। করোনা ভাইরাসে দেশে লকডাউনে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় বাড়িতে চলে আসে মশিউর রহমান সজিব ও আসিফুর রহমান সৌরভ।

লকডাউনে বাড়িতে এসে তাদের মায়ের কাছ থেকে মোবাইল কিনার জন্য টাকা চায়। মাও তার দুই ছেলেকে ৩৫ হাজার টাকা করে ৭০হাজার টাকা দিয়ে দেয়। কিন্তু সেই টাকায় তারা মোবাইল না কিনে কোয়েল ও সোনালী মুরগীর ফার্ম শুরু করে।

সজীব ও সৌরভের মা রূপা মজিব বলেন, আমার দুই ছেলে ডিপ্লোমা প্রকৌশলী পড়ছে। কলেজ বন্ধ হওয়া বাসায় চলে আসে, হঠাৎ আমার কাছে থেকে মোবাইল কিনার জন্য টাকা চায় আমি দুই ভাইকে ৭০হাজার টাকা দি। সেই টাকা দিয়ে মোবাইল না কিনে দুই ভাই মিলে পরিকল্পনা করে ফার্ম করেছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সজীব ও সৌরভ এর খামারে কাজে ব্যস্থ এবং তারা বলেন, আমাদের কলেজ বন্ধ থাকায় কোন কাজ না থাকায় মার কাছ থেকে মোবাইল কেনার জন্য দুই ভাই ৭০হাজার টাকা নেই। মোবাইল না কিনে দুই ভাই মিলে পাচঁ শতাধিক কোয়েল পাখি ও সাড়ে চার হাজার সোনলী মুরগীর ছানা ও শতাধিক দেশি জাতের মুরগী দিয়ে ফার্ম শুরু করি। আশা করছি আগামী ছয়-সাত মাসের মধ্যে লাভের মূখ দেখবো।

তখন মায়ের টাকা ফেরত দিতে পারবো। আর তখন নিজের উপার্জনের টাকা দিয়ে মোবাইল কিনবো। এবং আমাদের এই উদ্যোগ দেখে পড়ালেখার পাশাপাশি বেকার বসে না থেকে অনেকেই নিজেরা কিছু করার চেষ্টা করবে বলে তারা জানান।