ব্রেকিং নিউজ

পার্বত্য চট্টগ্রামের দীর্ঘতম সেতুটি বীরশ্রেষ্ঠের নামে নামকরণের গণদাবী

॥ মেহেরাজ হোসেন ॥

২৫০ কোটি টাকায় পার্বত্য চট্টগ্রামের দীর্ঘতম সেতু স্থাপন করা হয়েছে মহান মুক্তিযুদ্ধে দেশমাতৃকার জন্য প্রাণ দেয়া সাত বীরের অন্যতম বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আবদুর রউফ এর সমাধিস্থান নানিয়ারচর উপজেলায়। শহীদের আত্মত্যাগের স্মারক হিসেবে নানিয়ারচরবাসীর পক্ষ থেকে দাবি উঠেছে সদ্য নির্মিত সেতুটির নামকরণ করা হোক ‘বীর শ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফ সেতু’।

সারাদেশে রাঙ্গামাটির নানিয়ারচর উপজেলা বিখ্যাত ও সু-পরিচিত একজন বীরশ্রেষ্ঠের জন্য। প্রধানমন্ত্রীর ভিসন ২১ ও ভিসন ৪১ এর রুপকল্পের অংশ বিশেষ এই সেতুটি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সার্বিক ব্যবস্থাপনায় চট্টগ্রাম ২৪ ইসিবি ইঞ্জিনিয়ারিং বেঙ্গল এই প্রজেক্টের দায়িত্বে আছেন। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মনিকো সেতু ও মহাসড়কের কাজগুলো করছে। সেতুর সম্পূর্ণ কাজ শেষ হলেও করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে উদ্বোধনে কিছুটা বিঘ্ন ঘটেছে অল্প কিছুদিনের মধ্যেই ব্রিজের উদ্ভোধন কাজ সম্পন্ন হবার সম্ভাবনা রয়েছে।

রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ববর্গ, স্কুল কলেজের শিক্ষক শিক্ষিকা, ডাক্তার, ব্যবসায়ী, চাষী, যুবক ও তরুন সমাজ, সেচ্ছাসেবী সংগঠন গুলো সহ সকল জনমানুষের আকা্ঙ্খায় গুঞ্জন ও প্রানের দাবী হয়ে দাড়িয়েছে সেতুর নামকরন যেন বীরশ্রেষ্ঠের নামে করা হয়।।

নানিয়ারচর উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ইলিপন চাকমা মুঠোফোনে জানান, মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ হওয়া ৭ জন বীরশ্রেষ্ঠের মধ্যে একজন নানিয়ারচর উপজেলাতে শুয়ে আছেন এটা যেমন আমাদের গৌরবের, নানিয়ারচর ব্রীজের নামকরন বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফ নামে করাটাও আমাদের গৌরবের হবে। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমাদের এটাই আবেদন।

মুঠোফোনে নানিয়ারচর উপজেলা বিএনপি সভাপতি নুরুজ্জামান হাওলাদার সেতু নামকরণের ব্যাপারে বলেন, ভবিষ্যত প্রজন্মের কাছে মহান মুক্তিযুদ্ধ ও ল্যান্স নায়ক বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফ বীরত্বের ইতিহাস তুলে ধরতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন থাকবে এই সেতু নামকরন বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফ নামে করা হোক।

আওয়ামী রাজনীতিবিদ ও চক্ষু চিকিৎসক ডা. কুদ্দুস হাবিব বলেন, নানিয়ারচরে বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফ এর সমাধি থাকাতে নানিয়ারচর ব্রিজটি তাঁর নামে করার দাবি জানাচ্ছি।

এছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্বাধীনতা প্রেমী এবং মুক্তিযোদ্ধা বীর সন্তানদের প্রতি সম্মান জানিয়ে নিজ নিজ ফেইসবুক পোষ্ট করে ব্যাপকভাবে এই দাবী তুলে ধরছে ইউজাররা।

নানিয়ারচর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নুরজামাল হাওলাদার তার ফেইসবুক পোস্টে সেতুটির নামকরন বীরশ্রেষ্ঠের নামে করার বিষয়ে তাঁর সমর্থনের কথা বললে তা জনমানুষের কাছে ব্যাপক সাড়া ফেলে।

ভাইস চেয়ারম্যানের পোস্টের কমেন্ট বক্সে প্রাইমারি স্কুল শিক্ষক টিসু নাথ জানান, “এটা হলে বীরশ্রেষ্ঠের প্রতি যথার্থ সম্মান জানানো হবে বলে মনে করি।”